অনন্ত’র আত্মকথন

0
52

সেদিন অনন্ত’র মনটা তেমন ভালো না ভার্সিটি যায়নি, হঠাৎ শিমুলের আগমন, অনন্ত বললো কি রে, কি খবর??
শিমুল: না’রে ভালো না…
অনন্ত : ক্যান, কি হইছে??
শিমুল: রিমি ইদানিং আমাকে এভোয়েড করতেছে!!
অনন্ত: তো? কি হইছে তাতে?

শিমুল অনন্ত’র হাত ধরে ছোট বাচ্চার মত কান্না শুরু করে দিলো!!

অনন্ত’র মনটা এক্কেবারে নরম, কারো কষ্ট সহ্য করতে পারে না!! বললো ভাই থাম, কি হইছে খুলে বল।

শিমুল যা বললো: আমি কিছুদিন আগে রিমিকে বলেছিলাম আমার মনের কথা, ও পাত্তা দেয়নি, আমিও নাছোড়বান্দা, ওর পিছনে পাক্কা ২মাস ঘুরে একটা ডেট পেয়েছি, কিন্তু সেটাও মাত্র ৩০মিনিটের, হাত ছুঁয়ে দেখারও সৌভাগ্য হয়নি!!
অনন্ত মনে মনে বললো: তাহলে রিমি সেদিন আমাকে কি মিথ্যে বলেছে!!! আচ্ছা তারপর??

শিমুল: তারপর আর কি, কিছুই না…
অনন্ত: এখন আমার কাছে তুই কি চাচ্ছিস??
শিমুল: আমার আর রিমির ব্যাপারটা তুই একটু কিছু করে দে না ভাই…
অনন্ত: মেজাজ ঠান্ডা করে, আমি কি করতে পারি, ও যদি তোকে পাত্তা না দেয়…
শিমুল: আমি রিমিকে না পাইলে মরে যাবো, আমারে বাঁচা ভাই….তুই রিমি’র সবচেয়ে ভালো বন্ধু, তুই যা বলবি ও তাই শুনবে…
অনন্ত’র মনটা আরো খারাপ হয়ে গেলো! যাকে সে এত্ত ভালোবাসে, তাকে অন্য কাউকে ভালোবাসতে বলতে হবে!! অনন্ত কি করবে কিছুই বুঝতে পারছে না!!

চলবে……

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here